Hawker.com.bd     SINCE
 
 
 
 
পুঁজিবাজারে সাড়ে ৫ বছরে সর্বোচ্চ লেনদেন [ ব্যবসা বানিজ্য ] 11/01/2017
পুঁজিবাজারে সাড়ে ৫ বছরে সর্বোচ্চ লেনদেন
ফের সূচক ও লেনদেনে রেকর্ড করল দেশের দেশের পুঁজিবাজার। মঙ্গলবার দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই সূচক ও লেনদেন রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে। প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) এক হাজার ৬৯৬ কোটি ৯৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা গত সাড়ে ৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে ২০১১ সালের ২৮ জুলাই সর্বশেষ ডিএসইতে এক হাজার ৮০৪ কোটি টাকার লেনদেন হয়।

এদিকে লেনদেনের সঙ্গে সূচকও বেড়েছে বড় ব্যবধানে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৬২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ২৭৭ পয়েন্টে। প্রসঙ্গত, দেশের পুঁজিবাজারের এই উস্ফলন গত বছরের নবেম্বর থেকেই বজায় রয়েছে। তবে গত দুই মাসে সূচক ও লেনদেন ধীরে ধীরে বেড়েছে। আর চলতি সপ্তোহের দ্বিতীয় ও তৃতীয় কার্যদিবস সূচক ও লেনদেন বেড়েছে বড় ব্যবধানে।

বিশ্লেষকদের মতে, গত রবিবার প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী দেশের পুঁজিবাজার নিয়ে ইতিবাচক বক্তব্য দিয়েছেন। এতে বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজার নিয়ে আশাবাদী। তাই গত দুই দিনে পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেনের বড় উস্ফলন ঘটেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। মঙ্গলবার ডিএসইতে আগের দিনের তুলনায় ৪৫০ কোটি ১৫ লাখ টাকা বা ৩৬ শতাংশ বেশি লেনদেন হয়েছে। সোমবার ডিএসইতে এক হাজার ২৪৬ কোটি ৭৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩২৬টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২১৮টির, কমেছে ৭৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির শেয়ার দর। এদিকে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ৬২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫ হাজার ২৭৭ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২৪০ পয়েন্টে। আর ডিএস৩০ সূচক ১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৮৯৪ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : বেক্সিমকো, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেম, এ্যাপোলো ইস্পাত, ইফাদ অটোস, লঙ্কা বাংলা ফাইন্যান্স, ইউনিক হোটেল, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, ডেসকো, কেয়া কসমেটিকস ও ডরিন পাওয়ার।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, জিবিবি পাওয়ার, তসরিফা ইন্ডাস্ট্রিজ, সিমটেক্স, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স, প্রাইম টেক্স, ইসলামী ইন্স্যুরেন্স, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স, ফার ইস্ট নিটিং ও ইভিন্স টেক্সটাইল।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইমাম বাটন, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড, ঝিল বাংলা সুগার, উসমানিয়া গ্লাস, রংপুর ফাউন্ডি, মেঘনা পেট, হোটেল পেনিনসুলা চট্টগ্রাম, কনফিডেন্ট সিমেন্ট ও এমবে ফার্মা।

অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে। সিএসইতে ১০৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। সিএসই সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২১৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ২৪২ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৬৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৯টির, কমেছে ৬০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো: এপেক্স ফুটওয়ার, বেক্সিমকো, এ্যাপোলো ইস্পাত, বিএসআরএম লিমিটেড, কেয়া কসমেটিকস, বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেম, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেঙ্গল উইন্ডসর, আরএসআরএম স্টিল ও সাইফ পাওয়ার টেক।
News Source
 
 
 
 
Today's Other News
More
Related Stories
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
 
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters