Hawker.com.bd     SINCE
 
 
 
 
বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভিসা জটিলতায় শতাধিক বিদেশী [ খবর ] 12/01/2017
বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভিসা জটিলতায় শতাধিক বিদেশী
৩ ঘণ্টা আটকে থাকার পর ছাড়া
৩ ঘণ্টা আটকে থাকার পর বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন থেকে ছাড়া পেল শতাধিক বিদেশী পাসপোর্টযাত্রী। বেনাপোল চেকপোস্ট আন্তর্জাতিক পুলিশ ইমিগ্রেশনে ভিসা জটিলতার কারণে বিভিন্ন দেশের (বিদেশী) শতাধিক পাসপোর্টযাত্রী আটকে ছিলেন। বুধবার সকাল ৭টা থেকে বিদেশী পাসপোর্টযাত্রীদের হাতে লেখা ভিসা বেনাপোল ইমিগ্রেশন গ্রহণ না করায় তারা বিপাকে পড়েন। বুধবার সকালে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের একটি নির্দেশনা জারির পর ইমিগ্রেশন পুলিশ এ ধরনের বিদেশী যাত্রীদের বাংলাদেশে প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপ করে। পরে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাদের বাংলাদেশে প্রবেশে অনুমতি দেয়া হয়।

হঠাৎ এ ধরনের সিদ্ধান্তের পর বেনাপোল ইমিগ্রেশনে হাতে লেখা পাসপোর্টযাত্রীদের ভিসা এন্ট্রি না করায় বিদেশ থেকে আসা পাসপোর্ট যাত্রীরা পড়ে মহাবিপাকে। সকালে ইমিগ্রেশনে এসে তারা শীতের মধ্যে খোলা আকাশের নিচে দাঁড়িয়ে ছিলন ৩ ঘণ্টা। বিদেশিদের মধ্যে হাতে লেখা পাসপোর্টযাত্রী ভারতীয়রাই বেশি। ভারতীয় পাসপোর্টযাত্রীরা জানান, ভারতের কাস্টমস ও ইমিগ্রেশন তাদের হাতে লেখা পাসপোর্টের ওপর কোনো বিধি নিষেধ না করায় এবং এন্ট্রি সিল দেয়ায় তারা বাংলাদেশে এসেছেন। এ দেশে এসে পাসপোর্টের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করতে পারছিলাম না। ৩ ঘণ্টা পর আমাদের পাসপোর্টে সিল মেরে বাংলাদেশে প্রবেশে অনুমতি দেয় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ।

ভারতের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার সঙ্গীতা বিশ্বাস এবং মিঠুন চক্রবর্তী বলেন, বাংলাদেশে বেড়াতে এসে সকালে বেনাপোল এসে পৌঁছে ভিসা জটিলতার কারণে আমরা সমস্যায় পড়েছিলাম। পরে সমাধান হয়ে গেছে।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল আহম্মেদ জানান, হাতে লেখা ভিসায় কোনো পাসপোর্টধারীযাত্রীরা বেনাপোল ইমিগ্রেশন দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না পারে এ রকম একটি পরিপত্র অফিসিয়ালভাবে আসায় এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল। তবে এটা শুধু ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসের ভিসার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। তিনি আরও বলেন, ২০১৬ সালের যে সব হাতে লেখা পাসপোর্ট রয়েছে তাদের প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে।

ওসি আরও জানান, ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশকে জানুয়ারি মাসে হাতে লেখা ভিসার মাধ্যমে বিদেশী যাত্রীদের বাংলাদেশে না পাঠানোর জন্য জানানো হয়েছে। এখন যারা বাংলাদেশে আসতে চান অবশ্যই তাদের ডিজিটাল স্টিকার লাগানো ভিসায় আসতে হবে। এরই মধ্যে যারা বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছেন তাদের মধ্যে শুধু বিশ্ব ইজতেমায় আসা যাত্রীদের ছাড় দেয়া হচ্ছিল। বুধবার যারা আটকে ছিলেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে তাদের ছাড় দেয়া হয়েছে। এরপর থেকে কোনো যাত্রীকে আর প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।
News Source
 
 
 
 
Today's Other News
More
Related Stories
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
 
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters