Hawker.com.bd     SINCE
 
 
 
 
বারমুডা ট্রায়াঙ্গলে ফের বিমান নিখোঁজ! [ শেষের পাতা ] 19/05/2017
বারমুডা ট্রায়াঙ্গলে ফের বিমান নিখোঁজ!
বারমুডা ট্রায়াঙ্গলে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে গেল একটি চার্টার্ড বিমান। মিয়ামি এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, বিমানটিতে ছিলেন বিমানচালকসহ মোট চারজন। এদের মধ্যে তিনজন একই পরিবারের সদস্য। ওয়েবসাইট।
জানা গেছে, বিমানে ছিলেন মার্কিন ব্যবসায়ী জেনিফার ব্লুমিন, তার দশ ও চার বছর বয়সী দুই ছেলে। মিয়ামি এটিসি আরও জানাচ্ছে, গত সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ১০ মিনিট নাগাদ বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
এটিসি সূত্রের খবর, বিমানটির সবশেষ অবস্থান ছিল বাহামা থেকে ৩৭ মাইল পূর্বে, সমুদ্র থেকে ২৪ হাজার ফুট উঁচুতে এবং এর গতিবেগ ছিল ৩০০ নটিক্যাল মাইল।
১৯৪৫-এ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় পাঁচটি মার্কিন বোমারু বিমান এই বারমুডা ট্রায়াঙ্গলে পড়ে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ পাঁচটি বিমানের সন্ধানে আরও তিনটি বিমান পাঠানো হয়। ফোর্ট লডরডেলের বিমানঘাঁটিতে ফেরেনি ওই বিমানগুলোও। নিখোঁজ বিমানটির চালক
নাথান উলরিচের সাবেক স্ত্রী মঙ্গলবার টুইট করে বারমুডা ট্রায়াঙ্গলে এই বিমানটির নিখোঁজ হওয়ার কথা জানান। বাহামা উপকূলীয় নিরাপত্তা বাহিনী ও বাহামা ডিফেন্স ফোর্স তার আগেই নিখোঁজ বিমানটির তল্লাশি শুরু করেছে। তবে ৪৮ ঘণ্টার ওপর কেটে গেলেও বিমানটির কোনো হদিস মেলেনি।
এ যুগের অন্যতম বড় রহস্য বারমুডা ট্রায়াঙ্গল। আটলান্টিক মহাসাগরের প্রায় ৪ লাখ ৪০ হাজার মাইল এলাকা জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে বারমুডা ট্রায়াঙ্গল। অসংখ্য মানুষ, বিমান, জাহাজ এই ত্রিকোণ রহস্যের মধ্যে পড়ে চিরতরে হারিয়ে  গেছে। ১৪৯২ সালে স্প্যানিশ নাবিক ও ভূ-পর্যটক ক্রিস্টোফার কলম্বাস প্রথম এই বারমুডা ট্রায়াঙ্গল সম্পর্কে লেখেন। তার জাহাজের কম্পাসও বারমুডা ট্রায়াঙ্গলে অকেজো হয়ে যায়। সে যাত্রায় কোনো ক্রমে উদ্ধার পান তিনি।
বিগত একশ’ বছর ধরে একাধিক সম্ভাবনা, অনুমান সামনে এলেও এ ব্যাপারে কোনো নির্দিষ্ট ব্যাখ্যা দিতে পারেননি বিজ্ঞানীরা। তবে ২০১৬ সালে বিখ্যাত আবহাওয়াবিদ র্যান্ডি কারভ্যানিসহ বেশ কিছু বিজ্ঞানী ব্যাখ্যা দেন এই রহস্যের। তাদের দাবি, বারমুডা ট্রায়াঙ্গলের রহস্যের পেছনে রয়েছে একরকম ষড়ভূজাকৃতি মেঘ (হেক্সাগোনাল ক্লাউড)। উত্তর আটলান্টিক মহাসাগরের বারমুডা দ্বীপে ২০ থেকে ৫৫ মাইল জুড়ে ষড়ভূজাকৃতি মেঘ তৈরি করে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বায়ু। যার গতিবেগ ঘণ্টায় ১৭০ মাইল। এই উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বায়ুকে বলা হয় ‘এয়ার বম্ব’। এই বায়ু প্রায় ৪৫ ফুট উচ্চতার ঝড় তৈরি করতে পারে। যার ফলে বারমুডা  ট্রায়াঙ্গেল দিয়ে যাওয়া জাহাজ বা প্লেন উধাও হয়ে যায়।
News Source
 
 
 
 
Today's Other News
• পর্যটন খাতে দুবাইয়ের বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ করার আহ্বান
• বন্দরকে ব্যবসায়ীবান্ধব করাই প্রধান লক্ষ্য
• সোনাদিয়া পয়েন্টে ভিড়েছে এলএনজিবাহী জাহাজ এক্সিলেন্স
• চট্টগ্রাম বন্দরের ১৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ
• হজ নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন আরও ২৩৬ জন
• রমজানের পণ্য আমদানিতে এখনো জাহাজজট হয়নি
• চট্টগ্রাম বন্দরকে ব্যবহারকারী বান্ধব করে তোলা হবে
• কন্টেনার পণ্য হ্যান্ডলিংয়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়াচ্ছে বন্দর
More
Related Stories
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
 
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters