মুস্তাফিজে কাঁপল আয়ারল্যান্ড [ ] 20/05/2017
মুস্তাফিজে কাঁপল আয়ারল্যান্ড
বাংলাদেশের সহজ জয়
ক্যারিয়ারের প্রথম দুই ম্যাচেই নিয়েছিলেন ৫ ও ৬ উইকেট। মাস কয়েকের মধ্যে আবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫ উইকেট। তারপর কেটে গেছে প্রায় দুই বছর। এই লম্বা সময়ে আর ৪টি                 উইকেটও পাননি এক ম্যাচে। অবশেষে সেই চক্র থেকে বেরিয়ে এলেন মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজ খুজে পেলেন নিজেকে, বাংলাদেশও খুজে পেলো নিজেদের চেহারাটা।

শুধু মুস্তাফিজ নন, সবুজ ঘাসের উইকেটে কাল জ্তলে উঠলেন মাশরাফি বিন মুর্তজাও। সেই সাথে দারুন অভিষেক হলো সানজামুল ইসলামেরও। ত্রিমুখী এই আক্রমনে দিশেহারা হয়ে গেলো আয়ারল্যান্ড। ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ ও আয়ারল্যান্ডের প্রথম ম্যাচ ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। গতকাল দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ ৮ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারালো স্বাগতিকদের।

ছোট্ট এই লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে খেলা এরই মধ্যে হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছেন ব্যাটসম্যানরা। তামিম ও সৌম্য আরও একবার দারুন শুরু এনে দেন। বিনা উইকেটে ৯৫ রান তুলে ফেলার পর ৪৭ রান করা তামিম ফিরে আসেন। এরপর  বাকী পথটা সৌম্যর আগ্রাসনে দারুনভাবে পাড়ি দিয়ে ফেলে বাংলাদেশ; সঙ্গী ছিলেন সাব্বির রহমান রুম্মন। ফর্ম ফিরে পাওয়া সাব্বির অবশ্য জয়ের দুয়ারে থাকতে ৩৫ রান করে আউট হয়ে ফেরেন। ২২.৫ ওভার ও ৮ উইকেট হাতে রেখে বাংলাদেশ যখন জয় নিশ্চিত করে ফিরছে, সৌম্য অপরাজিত ৮৭ রানে।

উইকেট থেকে বোলাররা সহায়তা পাচ্ছিলেন এই সিরিজের প্রথম ম্যাচ থেকেই। কিন্তু টসভাগ্য পক্ষে না থাকায় সুবিধেটা আগে কাজে লাগাতে পারছিলেন না বাংলাদেশী বোলাররা। অবশেষে কাল টসে জিতে বোলিং নিতে পারলো বাংলাদেশ। ফলাফল হাতেনাতে।

দু পাশ থেকে আটোসাটো বোলিং শুরু করলেন মুস্তাফিজ ও রুবেল হোসেন। ১৫টি বল ব্যয় করে ফেলার পর প্রথম রান নিতে পারলো আইরিশরা। নিজের প্রথম ওভারেই প্রথম আঘাতটা হানলেন মুস্তাফিজ। লেন্থ থেকে লাফিয়ে ওঠা মুস্তাফিজের বল ফিরিয়ে দিল বিপজ্জনক পল স্টার্লিংকে। ব্যাটের কানা ছুঁয়ে স্লিপে ক্যাচ।

এরপর জুটি গড়ার চেষ্টা করছিলেন উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড ও এড জয়েস। পোর্টারফিল্ডের উইকেটটা পেতে পারতেন মাশরাফি। অধিনায়কের বলে পোর্টারফিল্ডের যে ক্যাচটি নিতে পারলেন না মোসাদ্দেক, সেটি ইচ্ছে করেও মিস করা কঠিন!

এই ভুলের সংশোধণ মোসাদ্দেকই করলেন। পরের ওভারেই মোসাদ্দেকের হাতে বল তুলে দেন মাশরাফি। ফিরতি ক্যাচ নিয়ে ফেরান পোর্টারফিল্ডকেই। বালবার্নি উইকেটে গিয়েই ছক্কা মেরেছিলেন সাকিবকে। এই অলরাউন্ডার জবাব দিয়েছেন দারুণ এক আর্ম ডেলিভারিতে বোল্ড করে।

এরপর আরেকবার প্রতিরোধের চেষ্টা করেছিলো আইরিশরা। জয়েস ও আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান নেইল ও’ব্রায়েন গড়ে তোলেন জুটি। আবারও মুস্তাফিজ বাংলাদেশকে খেলায় ফিরলেন। ৩০ রান করা নেইল ও’ব্রায়েনকে ফিরিয়ে ভাঙলেন ৫৫ রানের জুটি। সেটির হাত ধরে টপাটপ আরও কিছু উইকেট। এই দারুন স্পেলে আরও দুটি উইকেট নিলেন মুস্তাফিজ। আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের প্রথম ওভারেই সানজামুল ফেরালেন জয়েসকে। অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান করেছেন ৭৪ বলে ৪৬।

১৩৪ রানে আয়ারল্যান্ড হারায় ৭ উইকেট। স্বীকৃত কোনো ব্যাটসম্যান নেই। দুই বোলার ব্যারি ম্যাকার্থি ও জর্জ ডকরেল তবু চেষ্টা করেছেন লড়াইয়ের। গড়েছেন গুরুত্বপূর্ণ একটি জুটি। এই জুটি ভাঙেন অভিষিক্ত সানজামুল।

শেষটা করেছেন মাশরাফি। ম্যাচ জুড়ে দরুণ সব অফ কাটার করা অধিনায়ক এক ওভারেই তুলে নিয়েছেন শেষ দুই উইকেট। শেষটিতে ডানদিকে ঝাঁপিয়ে এক হাতে দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়েছেন মুশফিক।

তবে সবাইকে ছাপিয়ে নায়ক ৯ ওভারে ২টি মেডেনসহ ২৩ রান খরচ করে ৪ উইকেট তুলে নেওয়া মুস্তাফিজ।
 
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Today's Other News
More
Related Stories
No link found
            Top
            Top
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters