Hawker.com.bd     SINCE
 
 
 
 
প্রথম দিনেই দাম উঠল ৯০ টাকা [ শিল্প বাণিজ্য ] 17/10/2017
বসুন্ধরা পেপারের বিডিং
প্রথম দিনেই দাম উঠল ৯০ টাকা
বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে বসুন্ধরা পেপার মিলস লিমিটেডের শেয়ার ৮৬ টাকা দিয়ে বিডিং শুরু হয়ে প্রথম দিনে সর্বোচ্চ ৯০ টাকা উঠেছে। প্রতিটি শেয়ার ৮৬ টাকা দামে ২ লাখ ৯০ হাজার ৬০০টি শেয়ার কিনতে বিডিং করেছেন এক ইলিজিবল ইনভেস্টর।
আগামী ১৯ অক্টোবর বিকেল ৫টা পর্যন্ত এ বিডিং-প্রক্রিয়া চলবে। গতকাল সোমবার বিকেল ৫টায় বিডিং শুরু হয়। এতে ইলিজিবল ইনভেস্টর অর্থাৎ যোগ্য বিনিয়োগকারী অংশ নেবে। বিডিংয়ে অংশ নেওয়া বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ৯০ টাকা দরে দুই লাখ ৭৭ হাজার ৭০০টি, ৮৮ টাকা দরে দুই লাখ ৮৪ হাজার, ৮৬ টাকা দরে দুই লাখ ৯০ হাজার ৬০০টি, ৮৩ টাকা দরে তিন লাখ এক হাজার ২০০টি, ৮২ টাকা দরে তিন লাখ ৪ হাজার ৮০০টি এবং ৮০ টাকা দরে ৯ লাখ ৩৭ হাজার শেয়ার কেনার প্রস্তাব দিয়েছে।

বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিবাজার থেকে ২০০ কোটি টাকা তুলতে আগ্রহী বসুন্ধরা গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা পেপার মিলস লিমিটেড। গত ২৭ আগস্ট ইলেকট্রনিক বিডিং সম্পাদনের মাধ্যমে কাট-অব প্রাইস নির্ধারণের অনুমোদন দেয় পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর বিডিং প্রক্রিয়ায় ইস্যু মূল্য নির্ধারণে ইলেকট্রনিক সাবসক্রিপশন সিস্টেম সফটওয়্যার ব্যবহার ও টেকনিক্যাল সহায়তায় বসুন্ধরা পেপার মিলস, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে কম্পানিটি ইলেকট্রনিক বিডিংয়ের মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রির পাশাপাশি কাট-অব প্রাইস নির্ধারণ করবে। কাট-অব প্রাইস তথা যে দামে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের জন্য সংরক্ষিত কোটার শেয়ার বিক্রি শেষ হবে, সেই দামের চেয়ে ১০ শতাংশ কম দামে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করার জন্য প্রস্তাব দেওয়া হবে।

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করা শেষ হলে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রির জন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে ফের অনুমতি চাইবে কম্পানিটি। বিএসইসির অনুমতি পেলে শেয়ার আবেদন ও চাঁদা নিতে অর্থাৎ আইপিও আবেদনের সময়সূচি প্রকাশ করবে কম্পানিটি।

পুঁজিবাজার থেকে উত্তোলিত অর্থ ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের সম্প্রসারণ, নতুন যন্ত্রপাতি ক্রয় ও দীর্ঘমেয়াদি ঋণ পরিশোধে ব্যয় করা হবে। যার বড় অংশই থাকবে কারখানার মেশিনারিজ ও উৎপাদন সুবিধার আধুনিকায়ন। এ ক্ষেত্রে ব্যয় হবে ১২০ কোটি টাকা। অবকাঠামোগত উন্নয়নে ৬ কোটি, ইনস্টেলেশনে ৩ কোটি, যন্ত্রাংশে ৩ কোটি, ব্যাংকঋণ পরিশোধে ৬০ কোটি, ভূমি ও ভূমি উন্নয়নে ৩ কোটি টাকা ও আইপিও প্রক্রিয়ায় খরচ হবে ৫ কোটি টাকা।

বসুন্ধরা পেপার মিলস লিমিটেডের ইস্যু ম্যানেজার এএএ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড। আর রেজিস্টার টু দ্য ইস্যু এফসি ক্যাপিটাল লিমিটেড।
News Source
 
 
 
 
Today's Other News
More
Related Stories
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
 
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters