Hawker.com.bd     SINCE
 
 
 
 
নিয়মিত রিটার্ন জমার শেষ দিন আজ [ শিল্প বাণিজ্য ] 30/11/2017
নিয়মিত রিটার্ন জমার শেষ দিন আজ
নিয়মিত রিটার্ন জমার শেষ দিন আজ
আজ ৩০ নভেম্বর জাতীয় আয়কর দিবস। নিয়মিত আয়কর রিটার্ন জমার শেষ দিন।
আজ রাত ১০টা পর্যন্ত কর অঞ্চলে রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে। তবে যুক্তিসংগত কারণ দেখিয়ে রাজস্ব কর্মকর্তার অনুমতি নিয়ে আজকের পরও রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে, এ জন্য করদাতাকে গুনতে হবে বাড়তি অর্থ।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সূত্র জানায়, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ৩০ নভেম্বরকে কর দিবস ঘোষণা করেছেন। অর্থাৎ ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে ২০১৭ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে করদাতার আয়-ব্যয়ের সব হিসাব আয়কর রিটার্নের মাধ্যমে ২০১৭ সালের ১ জুলাই থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে জমা দিতে হবে।

গত রবিবার এনবিআরের মূল দপ্তর থেকে বিভিন্ন কর অঞ্চলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, ‘৩০ নভেম্বর কর নিয়মিত রিটার্ন দাখিলের শেষ দিন হওয়ায় কর অঞ্চলের প্রত্যেককে দপ্তরে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত উপস্থিত থাকতে হবে। এ দিন রাত ১২টার মধ্যে কোনো করদাতা বা করদাতার প্রতিনিধি রিটার্ন দাখিলে এলে তা গ্রহণ করতে হবে। কোনো দাতাকে ভোগান্তিতে ফেলা যাবে না। কোনো রাজস্ব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে করদাতাকে হয়রানির অভিযোগের সত্যতা প্রমাণ হলে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

বিশেষ কোনো কারণে করদাতা ৩০ নভেম্বরের মধ্যে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে না পারলে পরে রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়ানোর আবেদন করতে পারবেন।
এ ক্ষেত্রে করদাতাকে সংশ্লিষ্ট কর অঞ্চলের উপকর কমিশনার বরাবর আবেদন করতে হবে। সময় বাড়ানোর আবেদনপত্র এনবিআরের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

আয়কর অধ্যাদেশের ৭৫ ধারা অনুসারে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আয়কর রিটার্ন দাখিলে ব্যর্থ হলে করদাতার ওপর সংশ্লিষ্ট রাজস্ব কর্মকর্তা আয়কর অধ্যাদেশের ১২৪ ধারা অনুসারে জরিমানা আরোপ করতে পারবেন। একই সঙ্গে রাজস্ব কর্মকর্তা ৭৩ ধারা অনুযায়ী ৫০ শতাংশ অতিরিক্ত সরল সুদ বা ৭৩(এ) ধারা অনুসারে বিলম্ব সুদও আরোপ করতে পারবেন। তবে উপকর কমিশনার কর্তৃক বাড়ানো সময়ে কোনো করদাতা রিটার্ন জমা দিলে জরিমানা আরোপ হবে না। কিন্তু অতিরিক্ত সরল সুদ ও বিলম্ব সুদ আরোপ হবে। এ ছাড়া রিটার্নে মিথ্যা তথ্য দিলে বা আয়কর পরিশোধের জাল সনদ জমা দিলেও শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে বিবেচিত হবে। এ ক্ষেত্রে আদালতে মামলা করবে এনবিআর। বিচারক শুনানি শেষে জেল ও জরিমানার পরিমাণ নির্ধারণ করবেন।   

এবারে ১ থেকে ৭ নভেম্বর দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন মেয়াদে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বিভিন্ন কর অঞ্চলে ১২ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বিকেন্দ্রিকরণ আয়কর মেলার আয়োজন করা হয়। ২৪ থেকে ৩০ নভেম্বর চলছে আয়কর সপ্তাহ। জানা যায়, এবারে রিটার্ন প্রদানের হার গতবারের প্রায় দ্বিগুণ।

চলতি করবর্ষে অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিলের সুযোগ পাচ্ছেন করদাতারা। অনলাইনে দাখিলের পর রিটার্ন পরিশোধের সনদ অনলাইনেই আসবে। রিটার্ন দাখিলসংক্রান্ত কোনো প্রশ্ন থাকলে অফিস চলাকালীন (০২) ৫৫৬৬৭০৭০ নম্বরে ফোনে যোগাযোগ করতে পারবেন।

রাজস্ব কর্মকর্তারা জানান, গতবারের তুলনায় এবারে  রিটার্ন দাখিলের পরিমাণ বেশি। কর অঞ্চল ১৩-এর কর কমিশনার হাফিজ আহমেদ মোর্শেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, গত ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত কর অঞ্চল ১৩ তে চলতি কর বর্ষের রিটার্ন জমা পড়েছে ১৯ হাজার ৩৪৪টি। গত বছরের একই সময়ে রিটার্ন জমা হয় ১০ হাজার ৩৪৯টি।

এনবিআরের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে বলেন, শুধু এ কর অঞ্চলে নয়, এনবিআর সব কর অঞ্চলেই রিটার্ন প্রদানের হার গতবারের প্রায় দ্বিগুণ। এবারে কী পরিমাণ রিটার্ন জমা পড়েছে ৩০ নভেম্বরের পর তা কেন্দ্রীয়ভাবে হিসাব করা হবে। আশা করছি গতবারের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি হবে।
News Source
 
 
 
 
Today's Other News
More
Related Stories
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
 
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters