Hawker.com.bd     SINCE
 
 
 
 
উদ্ভাবন ও সম্পদ সুরক্ষায় নিবন্ধন বাড়ছে [ শিল্প বাণিজ্য ] 26/04/2018
উদ্ভাবন ও সম্পদ সুরক্ষায় নিবন্ধন বাড়ছে
বিশ্বজুড়ে মেধাসম্পদ সুরক্ষায় এখন সবাই তৎপর। এ নিয়ে প্রতিযোগিতাও রয়েছে বড় ব্র্যান্ড, কোম্পানি ও উদ্যোক্তাদের মধ্যে। বাংলাদেশেও এ বিষয়ে সচেতনতা বেড়েছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে। নিজেদের সম্পদের সুরক্ষায় এগিয়ে আসছেন এ দেশের কোম্পানি, ব্র্যান্ড, উদ্যোক্তা, বিজ্ঞানীসহ সংশ্নিষ্টরা। এ কারণে মেধাসম্পদের মালিকানা সুরক্ষায় শিল্প ও সেবা খাতে উদ্ভাবিত পণ্যের পেটেন্ট, শিল্পনকশা (ডিজাইন) ও ট্রেডমার্ক নিবন্ধন বাড়ছে। গত পাঁচ বছরে আগের একই সময়ের তুলনায় নিবন্ধন বেড়েছে ডিজাইনে ১৪ দশমিক ৫ শতাংশ এবং ট্রেডমার্কে ১৪৩ শতাংশ। এসব নিবন্ধন দ্রুত করতে চলতি বছরের শুরুতে স্বয়ংক্রিয় সেবা পদ্ধতি চালু করায় তা আরও গতি পেয়েছে। নিবন্ধন সেবা দেওয়ার পাশাপাশি সচেতনতা বাড়াতে কার্যক্রম করছে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তর (ডিপিডিটি)।
এবারও বিশ্ব মেধাসম্পদ দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে ডিপিডিটি। সেমিনার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে র‌্যালির আয়োজন করা হয়েছে।
আজ বৃহস্পতিবার এ দিবস উদযাপন করা হবে। বিশ্ব মেধাসম্পদ সংস্থা-ওয়াইপোর আহ্বানে প্রতিবছর ২৬ এপ্রিল এ দিবস পালন করা হয়। এ বছর দিবসের প্রতিপাদ্য \'ক্ষমতায়নের পরিবর্তন :সৃজনশীলতা ও উদ্ভাবনে নারী\'। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।
সংশ্নিষ্টরা জানান, পণ্য ও সেবা খাতে উদ্ভাবনী কার্যক্রমে দেশে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে। বিশেষ করে এসএমই ব্যবসা ও শিল্পে এগিয়ে আসছেন নারীরা। তবে মেধাসম্পদ সুরক্ষায় তেমন এগোতে পারেননি তারা। তাদের উদ্ভাবিত পণ্য ও সেবা নিবন্ধনের মাধ্যমে সুরক্ষিত নেই। এ কারণে তেমন প্রচারও নেই। এবারের দিবসের প্রতিপাদ্য অনুযায়ী নারীদের উদ্ভাবনী পণ্য নিবন্ধনের আওতায় আনার পাশাপাশি ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে বাজার সম্প্রসারণ জরুরি বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।
ডিপিডিটির রেজিস্ট্রার সানোয়ার হোসেন সমকালকে বলেন, মেধাস্বত্ব সুরক্ষায় সবাই এখন বেশি এগিয়ে আসছেন। এ কারণে নিবন্ধন বাড়ছে। তবে নারীদের ক্ষেত্রে আরও সচেতনতা প্রয়োজন। নারীদের উদ্ভাবনী পণ্য ও সেবার প্রচার ও নিবন্ধন জরুরি। নিবন্ধিত হলে তাদের পণ্যের বাজার প্রসার হবে। এসএমই নারী উদ্যোক্তাদের সচেতনতা বাড়াতে সেমিনারসহ নানা উদ্যোগ নিয়েছে ডিপিডিটি বলে জানান তিনি।
সংশ্নিষ্টরা জানান, সৃজনশীলতা, নতুন উদ্যোগকে সহযোগিতা প্রদান এবং তাদের উদ্ভাবনকে সুরক্ষা দেওয়ার বিকল্প নেই। ডিপিডিটিও এ জন্য কাজ করছে। এ ধারাবাহিকতায় কয়েক বছর ধরে উদ্ভাবন সুরক্ষার জন্য পেটেন্ট, পণ্য ও সেবার ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য ট্রেডমার্ক ও সার্ভিস মার্ক এবং পণ্য ও সেবার নান্দনিক সৌন্দর্য সুরক্ষায় ডিজাইন নিবন্ধন বাড়ছে।
সংস্থাটির তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সাল পর্যন্ত অধিদপ্তরে ৫৩ হাজার ৫২৫টি ট্রেডমার্ক, ১৫ হাজার ৯৩৭টি ডিজাইন, তিন হাজার ২১৭টি পেটেন্ট ও দুটি জিআই নিবন্ধন হয়। আগের পাঁচ বছরের চেয়ে গত পাঁচ বছরে বিদেশি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি দেশি প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধন বেড়েছে। বিশেষ করে পণ্য ও সেবার ব্র্যান্ডিং বাড়াতে ট্রেডমার্ক নিবন্ধন প্রায় দেড় গুণ বেড়েছে। সর্বশেষ পাঁচ বছরে দেশি প্রতিষ্ঠানের চার হাজার ৩০৬টি ট্রেডমার্ক নিবন্ধন করা হয়। আগের পাঁচ বছরে এ সংখ্যা ছিল এক হাজার ৭৭৫টি। আগের একই সময়ের তুলনায় এ সময়ে পাঁচ শতাধিক নিবন্ধন বেশি হয়েছে। এ সময়ে দেশি প্রতিষ্ঠানের ডিজাইন নিবন্ধন হয়েছে তিন হাজার ৬২৩টি। তবে পেটেন্ট নিবন্ধনে দেশি প্রতিষ্ঠানের অগ্রগতি কিছুটা কম। ২৭৯টি আবেদনের বিপরীতে পেটেন্ট নিবন্ধন হয়েছে ৬২টি। তবে মেধাস্বত্ব নিবন্ধনে এখনও এগিয়ে আছে বিদেশি প্রতিষ্ঠান। প্রতিবছর ট্রেডমার্ক নিবন্ধনে দেশি প্রতিষ্ঠানের চেয়ে দ্বিগুণের বেশি হয়েছে বিদেশি প্রতিষ্ঠানের। পেটেন্ট নিবন্ধনের ক্ষেত্রে এ পার্থক্য কয়েক গুণ। এ ছাড়া শিল্প ডিজাইন নিবন্ধনে দেশি-বিদেশি সবার নিবন্ধন বেড়েছে।
News Source
 
 
 
 
Today's Other News
More
Related Stories
 
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
Forward to Friend Print Close Add to Archive Personal Archive  
 
 
Home / About Us / Benifits / Invite a Friend / Policy
Copyright © Hawker 2013-2012, Allright Reserved
free counters