[ ] 11/01/2017
 
মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর সব প্রস্তুতি সম্পন্ন
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ থেকে কর্মী পাঠানোর সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। শিগগিরই কর্মী পাঠানোর কার্যক্রম শুরু হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। ‘জিটুজি প্লাস’ ডিজিটাল পদ্ধতিতে অনলাইনের মাধ্যমে কর্মী নিয়োগ হবে দেশটিতে।
সূত্রে জানা গেছে, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া শিগগিরই শুরু হচ্ছে। ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে একজন কর্মীর নিয়োগে দীর্ঘ সময় লেগে যায়। তাই ডিজিটাল পদ্ধতিতে দুই সপ্তাহের মধ্যেই সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে শ্রমিক নিয়োগ নিশ্চিত করা হবে। মালয়েশিয়ায় নতুন এ পদ্ধতিতে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে বেস্টিনেট ও সিনারফ্লাক্স নামের দুটি প্রতিষ্ঠান। বেস্টিনেট ও সিনারফ্লাক্সের শীর্ষ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নতুন পদ্ধতিতে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। দু’দেশের সরকারের পক্ষ থেকে কর্মী নিয়োগের চূড়ান্ত ঘোষণা আসার পরই শ্রমিক নেয়া শুরু হবে। এদিকে মালয়েশিয়া সরকার যে পাঁচটি প্রতিষ্ঠানকে কর্মী নেয়ার অনুমতি দিয়েছে, তাদের কার্যক্রম সরেজমিন পর্যবেক্ষণ করতে বাংলাদেশ থেকে আট সদস্যবিশিষ্ট সাংবাদিক টিম মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছে। মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার শহিদুল ইসলাম বলেন, মালয়েশিয়া সরকারের ঘোষণা পেলেই কর্মী নিয়োগ করা শুরু হবে। কুয়ালালামপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনের শ্রম কাউন্সিলর সায়েদুল ইসলাম বলেন, আমরা আমাদের দিক থেকে শতভাগ প্রস্তুতি রয়েছে। মালয়েশিয়া সরকার যখন চাইবে কর্মী আসা শুরু হবে।