[ অর্থ-বাণিজ্য ] 13/03/2017
 
চীনের জেডটিইকে ১১৯ কোটি ডলার জরিমানা
 চীনের টেলিযোগাযোগ পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জেডটিইকে ১১৯ কোটি ডলার বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকা জরিমানা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদিত টেলিযোগাযোগ পণ্য ইরান ও উত্তর কোরিয়ায় বিক্রির অপরাধে গত সপ্তাহে প্রতিষ্ঠানটিকে এ জরিমানা করা হয়েছে। ইরান ও উত্তর কোরিয়ার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। নিষেধাজ্ঞার শর্ত অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবসা আছে এমন কোনো কোম্পানি দেশটিতে উৎপাদিত কোনো পণ্য বা সেবা ইরান ও উত্তর কোরিয়ায় বিক্রি করতে পারে না। অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার শর্ত ভঙ্গের বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় জেডটিইকে এ জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার এ অর্থ এখন পর্যন্ত আরোপিত সর্বোচ্চ জরিমানা হিসেবে উল্লেখ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার রস বলেন, ‘এই জরিমানার মাধ্যমে পুরো বিশ্বকে এই বার্তাই দিতে চাই যে, খেলা শেষ। যারাই যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ও রপ্তানি নিয়ন্ত্রণ আইন ভঙ্গ করবে, তাদের প্রত্যেককে কঠিন শাস্তির মুখে পড়তে হবে।’ নিউইয়র্ক টাইমস-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জেডটিই ইতিমধ্যেই জরিমানার অর্থ পরিশোধে রাজি হয়েছে। পাশাপাশি আরেক চীনা কোম্পানি হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে একই ধরনের অভিযোগের তদন্ত চলছে। হুয়াওয়ের পর চীনের দ্বিতীয় বৃহৎ টেলিযোগাযোগবিষয়ক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জেডটিই। এক বছর ধরেই জেডটিইর ব্যবসা ভালো যাচ্ছে না। জেডটিইর জরিমানার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল ম্যারি ম্যাককর্ড বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে উৎপাদিত পণ্য ইরান ও উত্তর কোরিয়ায় বিক্রিতে প্রতিষ্ঠানটির সর্বোচ্চ পর্যায়ের জড়িত থাকার প্রমাণ মিলেছে। তদন্ত দল ও আইনজীবীদের এ বিষয়ে অব্যাহতভাবে মিথ্যা তথ্য দিয়ে গেছে জেডটিই। জেডটিইর প্রধান নির্বাহী ও চেয়ারম্যান ঝাও জিয়ানমিং বলেন, জেডটিই ভুল স্বীকার করে এটার দায়িত্ব নিয়েছে। এই বিষয়ে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে জেডটিই সংকল্পবদ্ধ।