[ শেষের পাতা ] 12/09/2017
 
পোশাক খাতে রপ্তানি প্রবৃদ্ধি বাড়েনি
পোশাক খাতে নানা সংস্কারের পরেও রপ্তানি প্রবৃদ্ধি তেমন বাড়েনি। গত অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় সামান্য বেড়েছে প্রবৃদ্ধি। পোশাক মালিকেরা এজন্য অবকাঠামোগত সমস্যার পাশাপাশি সরকারি সহায়তার ঘাটতিকে দায়ী করেছেন। অন্যদিকে, বিশ্লেষকেরা বলছেন, পণ্য বহুমুখী না করার কারণেই রপ্তানি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য পূরণ হচ্ছে না। ইপিবির তথ্য অনুসারে, গত অর্থবছরে তৈরি পোশাক খাতে রপ্তানি আয় হয়েছে ২ হাজার ৮১৫ কোটি ডলার, যা আগের অর্থবছরের তুলনায় মাত্র শূন্য দশমিক দুই শূণ্য শতাংশ বেশি। তবে গত অর্থ বছরে এ খাতে রপ্তানি আয়ের লক্ষ্য ছিল ৩ হাজার ৩৮ কোটি ডলার। রপ্তানি আয়ের ৮০ ভাগ আসছে তৈরি পোশাক খাত থেকে। এ খাতের ওপর ভর করে আগামী চার বছরে উচ্চ রপ্তানি প্রবৃদ্ধি আশা করছে সরকার। এ লক্ষ্যে গত কয়েক বছরে কারখানায় কাজের পরিবেশও উন্নয়ন করেছে মালিক পক্ষ। এরপরেও রপ্তানিতে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য পূরণ না হওয়ায় হতাশ তারা। চলতি অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে রপ্তানিতে কিছুটা গতি এলেও খুব বেশি আশাবাদী নয় মালিক পক্ষ। রপ্তানী প্রক্রিয়া স্বাভাবিক রাখতে চট্টগ্রাম বন্দরের জটিলতা দূর করাসহ অবকাঠামোগত উন্নয়নের তাগিদ দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা।

অন্যদিকে, রপ্তানী প্রবৃদ্ধি বাড়াতে পণ্য বহুমুখীকরণের ওপর জোর দিচ্ছেন অর্থনীতিবিদেরা। চলতি অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে ৫৫২ কোটি ডলারের পোশাক রপ্তানি হয়েছে। এর মধ্যে নিট পোশাকে আয় হয়েছে ২৮৭ কোটি ডলার এবং ওভেন পোশাকের রপ্তানি থেকে এসেছে ২৬৫ কোটি ডলার।