[ ] 07/11/2017
 
প্রথমবারের মত বাংলাদেশে চালু হচ্ছে পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং চীনের লানজু জিয়াতং ইউনির্ভাসিটির সঙ্গে স্টামফোর্ডের চুক্তি
বাংলাদেশ চায়না ইনস্টিটিউট অব টেকনোলোজির (বিসিআইটি) সার্বিক তত্ত্বাবধানে চীনের লানজু জিয়াতং ইউনির্ভাসিটি বাংলাদেশের স্টামফোর্ড ইউনির্ভাসিটিতে প্রথমবারের মত চালু করতে যাচ্ছে পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর ৪ বছর মেয়াদি উচ্চতর ডিগ্রী ।

এ উপলক্ষে  ৬ নভেম্বর রাজধানীর  স্টামফোর্ড ইউনির্ভাসিটির সিদ্ধেশ্বরী ক্যাম্পাসে এক চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তিতে স্টামফোর্ডের পক্ষে স্বাক্ষর করেন প্রতিষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক মোহম্মদ আলী নকী ও চীনের লানজু জিয়াতং ইউনির্ভাসিটির প্রেসিডেন্ট ইয়াং জিজিয়াং।

 এসময় উপস্থিত ছিলেন চীনের গানসু প্রদেশের পররাষ্ট্র বিষয়ক ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল ইয়াং ইয়াংগং, বিসিআইটি’র চেয়ারম্যান মাসুম এম. মসহিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক চার্লি চা ও পরিচালক (অপারেশন) প্রবীর কুমার বড়–য়া।

পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং প্রসঙ্গে বিসিআইটি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক চার্লি চা জানান, দ্রুত বিকাশমান বাংলাদেশের পাওয়ার সেক্টরে চাহিদা থাকা সত্ত্বেও রয়েছে দক্ষ পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারের স্বল্পতা। সে চাহিদা পূরনে সরাসরি চীনের অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা পরিচালিত হবে এ বিভাগ।

বিসিআইটি’র চেয়ারম্যান মাসুম এম. মসহিন জানান, বর্তমানে দেশে সরকারি- বেসরকারি বেশ ক’টি বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। এসব প্রতিষ্ঠানে প্রচুর পাওয়ার ইঞ্জিনিয়ারের চাহিদা রয়েছে। এ ডিগ্রী অর্জনের পর দেশের পাওয়ার সেক্টরে কাজ করার রয়েছে অফুরান সম্ভাবনা। এছাড়া বিশ্ববাজারেও রয়েছে চাকুরির সুযোগ।

আগামীকাল চীনের এ সাত সদস্যের প্রতিনিধিদল তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।